রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

First Youth News Portal in Bangladesh

add 468*60

শিরোনাম

ভিন্ন রঙে আঁকা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস  সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের গুরুত্ব ও এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আত্মহত্যা সমাধান নয় যেভাবে প্রাণের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে দেখতে চাই অত:পর, কোন একদিন...... দ্রুত ওজন কমানোর কিছু কৌশল জাপানের সুমিতমো বৃত্তি পেল ঢাবির ৪০ শিক্ষার্থী চীন যাচ্ছে ইনস্টিটিউট অব মেরিন টেকনোলজি (আইএমটি) বাগেরহাটের ১০ শিক্ষার্থী ইন্টারনেট ও তরুণ প্রজন্ম জাপান সরকার দিচ্ছে মেক্সট স্কলারশিপ উচ্চ মাধ্যমিকের পর ক্যারিয়ার পরিকল্পনা মাসের খরচের টাকা বাঁচিয়ে ব্যতিক্রম লাইব্রেরি চালান রাজশাহীর বদর উদ্দিন ঢাকায় প্রথম পিআর অ্যান্ড ব্র্যান্ড কমস সামিট ২৬ অক্টোবর রাজনীতি-ক্ষমতা ও তারুণ্য গণতন্ত্র, সমাজতন্ত্র ও তারুণ্য

চীন যাচ্ছে ইনস্টিটিউট অব মেরিন টেকনোলজি (আইএমটি) বাগেরহাটের ১০ শিক্ষার্থী

ইয়ুথ জার্নাল ডেস্ক

পূর্ণাঙ্গ স্কলারশিপ নিয়ে চীন যাচ্ছেন ইনস্টিটিউট অব মেরিন টেকনোলজি (আইএমটি) বাগেরহাটের ১০ শিক্ষার্থী। আগামী ৪ অক্টোবর তারা চীনের উদ্দেশে দেশ ত্যাগ করবেন। স্কলারশিপপ্রাপ্ত ওই শিক্ষার্থীরা আগামী ১৫ অক্টোবর জিয়াংসু মেরিটাইম ইনস্টিটিউটে ক্লাস শুরু করবেন।

স্কলারশিপপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা হলেন, মো. খোরশেদ আলম, মো. সাব্বির হোসেন, মো. ইউসুব আলী, মো. রায়হান উদ্দিন রাফি, লিখন ইসলাম, মো. পিয়াস আহমেদ, মকবুল হোসাইন, আশিকুর ইসলাম, মো. নাইমুজ্জামান ইমরান ও মো. আল আমিন। তারা মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং ট্রেডে ডিপ্লোমা লেভেলে পড়াশুনা করবেন।

চীনে স্কলারশিপপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা জানান, পরিবারের সবাই অনেক খুশি হয়েছেন। স্কলারশিপ নিয়ে দেশের বাইরে পড়তে যাচ্ছি এজন্য আমাদেরও অনেক আনন্দ লাগছে। বাংলাদেশে মার্চেন্ট শিপ চাহিদার তুলনায় অপ্রতুল। আমরা আমাদের অর্জিত জ্ঞান দেশের মার্চেন্ট শিপের উন্নয়নে লাগাতে চাই। এছাড়া জাহাজ শিল্পের উন্নয়নের মাধ্যমে দেশের উন্নয়নে অবদান রাখতে চাই।

এসময় তারা আরও বলেন, প্রিন্সিপাল স্যার ও হাফিজ জামান স্যারের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় আমাদের চীন যাওয়ার স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। স্যার শুধু আমাদেরই না, অন্যান্য মেরিন ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীদেরও সাহায্য করে থাকেন। স্যারদের শিক্ষা আমাদের ভবিষ্যৎ জীবনের চলার পথে কাজ করবে।

স্কলারশিপপ্রাপ্ত সাব্বির হোসেন জানান, ছোট থেকেই স্বপ্ন ছিল জাহাজে করে পৃথিবী ঘুরব। স্বপ্ন পূরণের দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে খুব ভালো লাগছে। স্কলারশিপ পেয়ে বিনা খরচে যেতে পারাটা আনন্দকে বহুগুণ বাড়িয়ে দিয়েছে।

ইনস্টিটিউট অব মেরিন টেকনোলজি বাগেরহাটের ভারপ্রাপ্ত প্রিন্সিপাল প্রকৌশলী এমডি শামীম হোসাইন বলেন, আমরা সবসময় চাই, শিক্ষার্থীরা ভাল কিছু করুক। সে অনুযায়ী আমরা শিক্ষার্থীদের সবধরনের পরামর্শ ও সেবা দিয়ে থাকি।

আমরা চাই ইনস্টিটিউট অব মেরিন টেকনোলজি বাগেরহাটের মেধাবী শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন দেশে স্কলারশিপ পাক। সে চেষ্টার অংশ হিসেবে এ বছর আমাদের প্রতিষ্ঠান থেকে ১০ শিক্ষার্থী চীনের জিয়াংসু মেরিটাইম ইনস্টিটিউটে যাচ্ছে। যা দেশে বিদ্যমান আইএমটিগুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ। আশা করি, স্কলারশিপপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা পেশাগত জীবনে ভাল করবে।